AppsBusinessNewsTechnology

ভারত আরও 47 টি চীনা অ্যাপস নিষিদ্ধের পথে

ভারত সরকার গত মাসেই ৫৯ অ্যাপকে নিষিদ্ধ করেছিল, প্রতিটি অ্যাপস চীনের প্রতিষ্ঠান দ্বারা তৈরি বা মালিকানাধীন ছিল। বর্তমানে আর 47 টি চীনা অ্যাপসকে নিষিদ্ধ বলে ঘোষণা করা হবে।

ইন্ডিয়ান মিনিস্ট্রি অফ ইলেক্ট্রনিক্স এণ্ড আইটি ( Indian Ministry of Electronics and IT ) একটি নতুন ব্যান্ড অর্ডার প্রকাশ করেছে। এবং এই অ্যাপস নিষিদ্ধে প্রধানত, পূর্বের নিষিদ্ধ অ্যাপ গুলির হয়ে যে অ্যাপস গুলি সার্ভিস প্রদান করছে সেই অ্যাপ গুলিকেই নিষিদ্ধ করা হবে।  যেমন TIKTOK PRO, Cam Scanner Advance, HELO LITE এবং ShareIt । আশা করা হচ্ছে, আজকেই সম্পূর্ণ তালিকা প্রকাশ করবে দিল্লি ।

বিশ্বের দ্বিতীয় বৃহত্তম জনবহুল এবং বিশ্বের দ্বিতীয় বৃহত্তম ইন্টারনেট বাজারে ৫৯টি চীনা অ্যাপকে নিষিদ্ধ করায় ৫৯টি চীনা অ্যাপ TikTok, WeChat, ShareIt, and UC Browser প্রভৃতির ইনকাম প্রভাবিত হয়েছে পূর্বেই।

সাম্প্রতিক চীনবিরোধী মনোভাব আরও বেড়ে ওঠে ২০ জনেরও বেশি ভারতীয় সেনা নিহত হওয়ার পর থেকেই। TikTok, Club Factory, Clean Master, UC Browser এবং অন্যান্য অ্যাপ্লিকেশনগুলিতে মে মাসে 500 মিলিয়নেরও বেশি সক্রিয় ব্যবহারকারী ছিল, শীর্ষস্থানীয় মোবাইল নেটওয়ার্ক সংস্থাগুলির তথ্য় অনুসারে।

ভারত সরকার আরও বেশ কয়েকটি চীনা অ্যাপস এবং পরিষেবাকে নিষিদ্ধ বা নির্দিষ্ট কিছু নিয়মে সীমাবদ্ধ করার বিষয়ে ভাবনাচিন্তা করছে। সূত্রের খবর নয়াদিল্লি আরও ২৭৫ টি অ্যাপ পর্যালোচনা করছে, যেগুলির বেশিরভাগ চীনা প্রতিষ্ঠানগুলির মালিকানাধীন। যেমন ByteDance এর Resso music streaming service, Ali Express এবং mobile game PUBGM।

এই নিষিদ্ধতায় সবথেকে উপকৃত হয়েছে ভারতীয় স্টার্টআপ। InMobi Group’s Roposo, Twitter-backed Sharechat, Chingari এর মত ভারতীয় স্টার্টআপের কয়েক গুণ জনপ্রিয়তা বেড়েছে।

তবে ভারতে নিষেধাজ্ঞার সবচেয়ে বেশি সুবিধাভোগী হয়েছে ফেসবুক, Kantar মতে। গবেষণা সংস্থাটি রিপোর্ট অনুযায়ী, ফেসবুকের marquee service এবং Instagram Reels এর ব্যবহারকারী অনেক গুণ বেড়েছে।

Related Articles

Back to top button